করোনা ঝুঁকি যাচাই করতে ৩৩৩ বা *৩৩৩২# ডায়াল করুন। ভিজিট করুন corona.gov.bd অথবা ডাউনলোড করুন CoronaBD অ্যাপ। অযথা ৩৩৩ এ কল করলে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।


কেন্দ্রীয় গো-প্রজনন ও দুগ্ধ খামার সম্পর্কে

খামার স্থাপনের ইতিহাস
  • ১৯৫৯-৬০ ইং সালে তৎকালীন সাভার থানার ঢাকা আরিচা মহাসড়ক সংলগ্ন ২৬১৩.০০ একর অনাবাদি জমি নিয়ে খামারটি স্থাপিত হয়।
  • ১৯৬৩-৬৪ ইং সালে সিন্ধী, শাহিওয়াল জাতের গরুসহ দেশীয় গবাদিপশু নিয়ে খামারটির কার্যক্রম শুরু হয়।
  • ১৯৬৯ সালে প্রজনন কার্য্যক্রম শুরু করার লক্ষ্যে জার্মান কারিগরী সহায়তায় খামারের অবকাঠামো উন্নয়ন এবং প্রয়োজনীয় উপকরণাদি সংগ্রহ করা হয়।
  • বর্তমানে খামারটি সম্পূর্ন সরকারী ব্যবস্থাপনায় দেশের গবাদি পশুর জাত উন্নয়নের লক্ষ্যে “কেন্দ্রীয় গো-প্রজনন ও দুগ্ধ খামার” নামে জাতীয় গো-প্রজনন কেন্দ্র (Breeding Station) হিসাবে কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে।
  • বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে হস্তান্তরের পর বর্তমানে খামারের মোট জমির পরিমান ৭৯২.৮৭ একর।

খামারের মূল কার্যক্রম সমূহ
  • দেশীয় গবাদি পশুর জাত উন্নয়নের /ক্রমোন্নয়নের লক্ষ্যে সুপিরিয়র বুল কাফ প্রতিপালনের মাধ্যমে উন্নত প্রজনন ষাঁড় উৎপাদন করা।
  • খামারে উৎপাদিত উন্নত প্রজনন ষাঁড় হতে কৃত্রিম প্রজনন গবেষণাগারে সিমেন সংগ্রহ,প্রক্রিয়াজাতকরন ,সংরক্ষন ও জেলা কৃত্রিম প্রজনন কেন্দ্রে সরবরাহের মাধ্যমে দেশব্যাপী কৃত্রিম প্রজনন কার্যক্রমের সম্প্রসারণ অব্যাহত রাখা।
  • বিদ্যমান পশু খাদ্য সংকট নিরসনে অধিক উৎপাদনশীল উন্নত পুষ্টিমান সম্পন্ন জাতের ঘাস উৎপাদন ও সম্প্রসারণ করা।
  • স্বাস্থ্যসম্মত দুধ উৎপাদন, প্রক্রিয়াজাতকরণ ও বাজারজাতকরণ।
  • খামারে পালিত গবাদিপশুর প্রজনন স¦াস্থ্য ও মান সম্মত চিকিৎসা ব্যবস্থাপনার মাধ্যমে রোগ নিয়ন্ত্রন ও প্রতিরোধ কার্যক্রম সম্পাদন।
  • খামারে পালিত গবাদিপশুর খাদ্য, বাসস্থান ও প্রজনন ব্যবস্থাপনা কার্যক্রম সম্পাদন ও খামারের জৈব নিরাপত্তা নিশ্চিতকরণ।
  • দেশের গো-সম্পদ উন্নয়নের জন্য একটি সেবামূলক প্রতিষ্ঠান হিসাবে কেন্দ্রীয় ভূমিকা পালন করা।

কেন্দ্রীয় গো-প্রজনন ও দুগ্ধ খামারের বিভিন্ন শাখা সমূহ
উপ-পরিচালকের দপ্তর
👉 প্রশাসন শাখা
👉বায়ার শাখা
👉 ডেইরী শাখা
👉 কৃষি শাখা
👉ভেটেরিনারি শাখা
👉 ডেইরী অর্থনীতি শাখা
👉 এস্টেট শাখা
👉প্রকৌশল শাখা
👉 কেন্দ্রীয় কৃত্রিম প্রজনন শাখা

কেন্দ্রীয় গো-প্রজনন ও দুগ্ধ খামারের কর্মকর্তা বিবরন
কর্মকর্তা বিবরন মঞ্জুরীকৃত পদ বর্তমানে কর্মরত শূন্য পদ
প্রথম শ্রেনীর কর্মকর্তা ২২ ১৪ ০৮
দ্বিতীয় শ্রেনীর কর্মকর্তা ০১ ০১
তৃতীয় শ্রেনীর কর্মচারী ১০৯ ৬৩ ৪৬
৪র্থ শ্রেনীর কর্মচারী ১৬৫ ৯৫ ৭০
মোট = ২৯৭ ১৭২ ১২৫

কেন্দ্রীয় গো-প্রজনন ও দুগ্ধ খামারের শ্রমিকের বিবরণী
শ্রমিকের বিবরণী মঞ্জুরীকৃত পদ বর্তমানে কর্মরত শূন্য পদ
(ক) কন্টিনজেন্ট মিনিয়েল (নিয়মিত প্রতিষ্ঠান ভূক্ত) ৩০০ ৭৩ ২২৭
(খ) মাষ্টার রোল ১৪০ ১২৪ ১৬
(গ) চুক্তি ভিত্তিক ৫০ ৫০ ৫০
মোট = ৪৯০ ২৪৭ ২৪৩

কেন্দ্রীয় গো-প্রজনন ও দুগ্ধ খামারের জমির ব্যবহার

খামারে বর্তমান মোট জমির পরিমানঃ ৭৯২.৮৭ একর


(ক) অবকাঠামো ও স্থাপনা (রাস্তা, অফিস, সেড ইত্যাদি) আওতায়ঃ   ১৯২.৮৭ একর
   ১. প্যাডক ও শেড (৩১০০ গরু প্রতিপালনের জন্য):  ৫৭ টি
   ২. অফিস ও অন্যান্য ভবনঃ  ২৩ টি
   ৩. আবাসিক ভবনঃ  ৩৯ টি
(খ) মহিষ উন্নয়ন প্রকল্প ও মৎস্য গবেষনাগারঃ     ২০.০০ একর
(গ)ঘাস চাষের আওতায়ঃ         ৫৮০.০০ একর